আম্ফানে আহত ২০০ অতিথি পাখি রান্না করে খেয়ে ফেলেছে গ্রামবাসী!

নাটোরের বাজিতপুর গ্রামে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে গাছে ঠাঁই নেয় শামুকখোল পাখি। বৃহস্পতিবার ভোরে অন্তত দুইশ' পাখি ওই গ্রামে আশ্রয় নেয়। এরপর গ্রামবাসী পাখিগুলো ধরে ধরে জবাই করে রান্না করে খেয়ে ফেলে।



যে গাছে পাখিগুলো আশ্রয় নিয়েছিল, তার পাশেই আশরাফ আলীর বাড়ি। তিনি বলেন, এক একটা পাখির ওজন ছিল ২ থেকে ৩ কেজি করে। ঝড়ের সময় মানুষ যখন নিজেদের জানমাল নিয়ে ব্যস্ত, তখন কিছু পিশাচ লোক পাখিগুলো ধরে নিয়ে যায়। ঘটনা জানাজানি হওয়ার আগেই পাখিগুলো জবাই করে রান্নার উপযোগী করা হয়।


চলনবিল রক্ষা কমিটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, অসহায় অতিথি পাখি নিধনের ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। এ ধরনের পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে আগে থেকে তৎপর থাকা দরকার ছিল। পাখির আবাসস্থলের আশপাশের লোকজনকে সচেতন করে পাখি নিধন বন্ধে উদ্যোগ নেওয়া উচিত।

বড়াইগ্রাম উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা উজ্জল কুমার কুণ্ডু বলেন,  বিষয়টি তাঁদের জানা ছিল না। এ রকম ঘটনা যেন আর না ঘটে সে জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।