চিকিৎসক-নার্সদের কাছে লাঞ্ছিত বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী! (ভিডিও)

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় কার্যকর পদক্ষেপ না নেওয়ায় বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী সোফি উইলমেসকে অভিনব পদ্ধতিতে লাঞ্ছিত করেছে দেশটির একটি হাসপাতালের নার্স ও চিকিৎসকরা। অভ্যর্থনার জন্য লাইন দিলেও প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি প্রবেশমাত্র পেছন ঘুরে প্রধানমন্ত্রীকে অসম্মান জানান তারা।



ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে, গতকাল রোববার দেশে করোনার বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে রাজধানী ব্রাসেলসের সেন্ট-পিয়ের হাসপাতালে যান প্রধানমন্ত্রী সোফি উইলমেস। কিন্তু তার আগমনে প্রায় একশ চিকিৎসক-নার্স পেছনে ঘুরে তাকে অসম্মান জানান। এই নিয়ে একটি ভিডিও-ও প্রকাশ করা হয়েছে।

জানা গেছে, বেলজিয়ামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের প্রথম থেকেই চিকিৎসা দিয়ে আসছে সেন্ট-পিয়ের হাসপাতাল। বৈশ্বিক এই মহামারিতে হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মী, চিকিৎসক ও নার্সরা জীবন বাজি রেখে চিকিৎসা সেবা অব্যাহত রাখলেও তাদের সেই মর্যাদা দেয়নি বেলজিয়াম সরকার। কাজ অনুযায়ী বেতন বাড়ানো হয়নি। এমনকি স্বাস্থ্যখাতে নতুন কোনো বরাদ্দ দেওয়া হয়নি।

এ ছাড়া সম্প্রতি বেলজিয়াম সরকার এক অধ্যাদেশ জারি করে বলেছে, সরকারের নির্দেশে প্রয়োজনে ডাক্তারদের যেকোনো সময় যেকোনো স্থানে স্থানান্তর করা যাবে এবং তাদেরকে সে অবস্থায় চিকিৎসা সেবা চালিয়ে যেতে হবে। এর ওপর অপরিকল্পিতভাবে অনভিজ্ঞদের নার্স হিসেবে নিয়োগেরও অভিযোগ রয়েছে। এসব কারণেই প্রধানমন্ত্রীকে এভাবে অসম্মান জানানো হয়েছে।


এই ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী সোফি উইলমেস এক সংবাদ বিবৃতিতে বলেছেন, তাদের এই প্রতিবাদের মধ্য দিয়ে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে আলোচনার একটি দ্বার উন্মোচন হয়েছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যমতে, ইউরোপের দেশ বেলজিয়ামে এখন পর্যন্ত ৫৫ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছে। ইউরোপের দেশেগুলোর মধ্যে বেলজিয়ামে মৃত্যু হার সবচেয়ে বেশি। দেশটিতে এই ভাইরাসের এখন পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছে ৯ হাজার ৫২ জন।