মসজিদে কোন ৫ জন নামাজ পড়বে তা নিয়ে সংঘর্ষে ১ জন নিহত !

গোপালগঞ্জের মুকসুদপরে মসজিদে নামাজ পড়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে সুজন শেখ (২৬) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছে আরো ২ জন। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে।



সোমবার  (১৩ এপ্রিল) ভোর ৬টার দিকে মুকসুদপুর উপজেলার বাহারা পশ্চিমপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সুজন শেখ মুকসুদপুর উপজেলার বাটিকামারি বাহাড়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের মজিবর শেখের ছেলে।


সহকারী পুলিশ সুপার (মুকসুদপুর সার্কেল) মো. আনোয়ার হোসেন ভুঞা জানান, গতকাল রোববার বাহারা পশ্চিমপাড়া গ্রামে এশার নামাজ পড়া নিয়ে মজিবর শেখের সাথে মতি মাতুব্বর ও ইব্রাহিম মাতুব্বরের মসজিদে কোন ৫ জন নামাজ পড়বেন এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে আজ সোমবার ভোরে মসজিদে আবারো ফজরের নামজ পড়তে গেলে দুই পক্ষের মধ্যে আবার কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।


এর জের ধরে দু’পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে চলাকালে প্রতিপক্ষের হামলায় সুজন শেখ ঘটনাস্থলে নিহত হন ও অপর ২ জন আহত হন বলে জানান তিনি।

পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মারাত্মকভাবে আহত তুষার শেখ ও মজিবর শেখকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


তিনি আরো জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় পুলিশ ছবর সরদার নামে একজনকে আটক করেছে। কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সে জন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।