মাজেদকে গ্রেফতারে সহায়তা করেছে ভারত : ভারতীয় মিডিয়া

বঙ্গবন্ধুর খুনি ক্যাপ্টেন মাজেদকে গ্রেফতারে ভারতীয় গোয়েন্দারা বাংলাদেশকে সহায়তা করেছে বলে খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ডেকান হেরাল্ড।



গত সোমবার ৬ এপ্রিল গভীর রাতে রাজধানীর মিরপুর এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এ আসামি। পরদিন ডেকান হেরাল্ডের খবরে বলা হয়, ক্যাপ্টেন মাজেদকে গ্রেফতারের অভিযানে ভারত এবং বাংলাদেশের গোয়েন্দারা যৌথভাবে কাজ করেছেন।

যদিও বাংলাদেশ কিংবা ভারতীয় কর্তৃপক্ষ ওই ধরণের কোনো যৌথ অভিযানের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলেনি।


প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাবেক ক্যাপ্টেন আবদুল মাজেদকে মিরপুর এলাকা থেকে বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যরা গ্রেফতার করেন। ধারণা করা হচ্ছিলো ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যার শাস্তি এড়াতে তিনি ভারতে পালিয়ে ছিলেন।

ডেকান হেরাল্ডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নয়াদিল্লির একটি সূত্র তাদের জানিয়েছে, ভারত এবং বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো তার ফেরার বিষয়টি নিশ্চিত হতে এবং ঢাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করতে একসঙ্গে কাজ করেছে।


প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদকে খুঁজে বের করে বাংলাদেশের হাতে তুলে দেয়ার জন্য শেখ হাসিনা সরকার ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কাছে একাধিকবার অনুরোধ করেছেন। মনমোহন সিং শেখ হাসিনাকে এক্ষেত্রে সম্ভাব্য সকল সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছিলেন। এবার মোদি সেই কাজটি করলেন।


১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার সঙ্গে জড়িত ছিলেন ক্যাপ্টেন আব্দুল মাজেদ। ৪৫ বছর দেশের বাইরে পলাতক থাকার পর গত ৬ এপ্রিল গভীর রাতে রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হয় এই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। এবং ১১ এপ্রিল দিবাগতো রাত ১২ টা বেজে ১ মিনিটে তার ফাঁসি কার্যকর করা হয়।