Sponsored

করোনা আতঙ্কে স্কুলে অনুপস্থিত, শিক্ষার্থীদের পেটালেন শিক্ষক

রাজশাহীর পুঠিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অনেক ছাত্রী করোনা ভাইরাস আতঙ্কে কয়েকদিন ধরে ক্লাসে আসছে না। এ ঘটনায় অষ্টম শ্রেণির ১৫ জন শিক্ষার্থীকে ক্লাসে ডেকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে। এতে ছাত্রীদের মাঝে ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে।



স্কুল সূত্রে জানা গেছে, ক্লাসে অনুপস্থিত থাকার কারণে বৃহস্পতিবার সকালে অষ্টম শ্রেণির ১৫ ছাত্রীকে পিটিয়েছেন স্কুলের সহকারী শিক্ষক পল্লব কুমার সেন ডাকু। পিটুনির কারণে অনেক ছাত্রী এখন ক্লাসে আসতে চাচ্ছে না।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে পালোপাড়া গ্রামের একজন ছাত্রীর অভিভাবক জানান, দেশে গত কয়েকদিন থেকে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক বিরাজ করছে। এতে আমার মেয়েসহ অনেক শিক্ষার্থী জনসমাগম এড়াতে স্কুলে যাচ্ছে না। গত বৃহস্পতিবার আমার মেয়েকে জরুরিভাবে স্কুলে যেতে বলা হয়। স্কুলে গেলে অনুপস্থিত থাকার কারণে তাকেসহ অনেক ছাত্রীকে লাঠি দিয়ে পেটানো হয়। যা একজন অভিভাবক হিসাবে মেনে নেয়া যায় না।

স্কুলের সহকারী শিক্ষক পল্লব কুমার সেন ডাকু বলেন, ইদানিং ছাত্রীরা স্কুলের ক্লাসের চেয়ে প্রাইভেট নিয়ে বেশি ব্যস্ত থাকে। অষ্টম শ্রেণিতে প্রায় ১২০ জন ছাত্রী রয়েছে। এদের মধ্যে গড়ে প্রতিদিন ২০/৩০ জন ছাত্রী উপস্থিত থাকে। ক্লাসে উপস্থিতি বাড়াতে গত বৃহস্পতিবার অনুপস্থিত ছাত্রীদের আমি শাসন করেছি মাত্র। এরপর থেকে ছাত্রীদের উপস্থিতি বেড়েছে।


তবে বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সাত্তার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, ছাত্রীদের পিটানোর মত কোনো ঘটনা আমার জানা নেই। আর এ বিষয়ে শিক্ষার্থী বা অভিভাবক আমাকে কোনো অভিযোগও দেয়নি। এ বিষয়ে বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আহসানুল হক মাসুদের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।