Sponsored

দারাজের কাণ্ডে হতবাক ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম

শেখ হাসিনা সরকার যখন প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের ‘ছোবল’ থেকে দেশবাসীকে বাঁচাতে ব্যস্ত, ঠিক তখন এটাকেই ব্যবসার হাতিয়ার করে নিয়েছেন কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। এ অসাধু কাজে অনলাইন মার্কেটপ্লেস দারাজ ডটকম যেন আরও শত ধাপ এগিয়ে। তাদের কাণ্ডে হতবাক র‌্যাব। দারাজে ৫০ পিসের সার্জিক্যাল মাস্কের বক্স বিক্রি হচ্ছে ২২৫৫ টাকায়। অথচ পাইকারি বাজারে এই বক্সের দাম সর্বোচ্চ ৫০ টাকা। র‌্যাবের অভিযানে এই চিত্র ধরা পড়ে।



অভিযানে ম্যাজিস্ট্রেট দেখতে পান, দারাজে অ্যান্টি পলিউশন সেফটি মাস্ক তিন পিস ৪৭০ টাকায়, অ্যান্টি ডাস্ট মাস্ক পাঁচ পিস ১২৫৫ টাকা, সাধারণ সার্জিক্যাল মাস্ক প্রতিটি ৪২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অভিযানে দেখা যায়, দারাজের একাধিক সেলার একই মাস্ক একেক দামে বিক্রি করে ক্রেতা ঠকাচ্ছেন।

এর আগে রবিবার বিকালে রাজধানীর বনানীতে দারাজ ডটকম ডটবিডির অফিসে অভিযান শুরু করে র‍্যাব। অভিযানটির নেতৃত্ব দেন র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম।


অভিযানের বিষয়ে ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম  বলেন, করোনা মোকাবিলায় সরকার নানা ধরনের উদ্যোগ নিয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে সবার জন্য মাস্কের মূল্য নির্ধারণ। তবে দারাজের ওয়েবসাইটে সরকার নির্ধারিত দাম থেকে অতিরিক্ত দামে মাস্ক বিক্রির বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে। তাই এই অভিযান।