Sponsored

পোষ্য কুকুরকে ধর্ষণ বৃদ্ধের!

পৈশাচিক বললেও কম বলা হয়। দিনকয়েক আগেই বর্ধমানের কালনায় মদের নেশায় ঘরে ঢুকে একটি ছাগলকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছিল এক যুবকের বিরুদ্ধে। আর এবার বাড়ির পোষ্য কুকুরকেও লালসার শিকার বানালো মানুষ। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার দমদমে। ইতোমধ্যেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।



জানা গিয়েছে, দমদমের বেদিয়াপাড়ার বাসিন্দা এক ব্যক্তি এদিন সকালে নিজের পোষ্য কুকুরের চিৎকার শুনতে পান। প্রথমে তিনি বিষয়টাকে গুরুত্ব না দিলেও পর চিৎকারের মাত্রা বাড়তে শুরু করলে তিনি ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন। আর দেখতে পান, তাঁর পোষ্য কুকুর সোনামণিকে ধর্ষণ করছে ভাড়াটিয়া বৈদ্যনাথ দেবনাথ। সঙ্গেসঙ্গে তিনি পাড়ার লোকজনকে ডাকেন। মারধরও করা হয় তাঁকে।


সেইসঙ্গে গোটা বিষয়টি জানানো হয় পশুপ্রেমী সংগঠনকেও। তারা থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে পুলিশ অসহযোগিতা করে বলে অভিযোগ। পরে চাপে পড়ে ৩৭৭ ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ। গ্রেফতারও করা হয়েছে বৃদ্ধকে। তাঁকে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। কিন্তু এতটা অমানবিক ওই ব্যক্তি হলেন কীকরে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সে মানসিকভাবে সুস্থ কিনা, দেখা হচ্ছে তাও।

দিনকয়েক আগেই কালনার সাহাপুরে একটি ছাগলকে ধর্ষণ করে এক যুবক। ছাগলটির মালিক ভোম্বল মান্ডি ছাগলটিকে বেঁধে মাঠে কাজ করতে গিয়েছিল। সেই সময় নেশাগ্রস্ত অবস্থায় ঘরে ঢুকে পড়ে অভিযুক্ত কৃষ্ণ হালদার। ছাগলটিকে ধর্ষণ করে সে। সেই ঘটনা চোখে পড়ে যায় স্থানীয় বেশ কয়েকজনের। এরপরই তাঁরা কৃষ্ণকে ঘেরাও করে মারধর শুরু করে। পূর্ব সাহাপুরের কালিতলা এলাকার বাসিন্দা অভিযুক্ত কৃষ্ণ হালদার।