Sponsored

পরীক্ষা শেষের আনন্দ উপভোগে দলবেঁধে গণধর্ষণ

ভারতের আসামে গত শুক্রবার রাজ্যের বিশ্বনাথ জেলার গোহপুর থানা এলাকার চাকলা গ্রামে ১২ বছরের এক কিশোরীকে গণধর্ষণের পর গাছে ঝুলিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় রোববার সাত কিশোরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।



 তদন্ত কর্মকর্তা জানান, গ্রেপ্তার কিশোররা সবাই এ বছর দশম শ্রেণির বোর্ডের পরীক্ষা (হাই স্কুল লিভিং সার্টিফিকেট বা এইচএসএলসি) দিয়েছে। শুক্রবার পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর রাতে পার্টির আয়োজন করে তারা। পার্টিতে অংশ নিতে ওই কিশোরীকে একটি বাড়িতে ডেকে নেয় তারা। সেখানেই তাকে গণধর্ষণের পর খুন করে লাশ গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয় বলে প্রাথমিক তদন্তে মনে করছে পুলিশ। এ ঘটনায় আবার ছিল মেয়েটির প্রেমিকও! অভিযোগ, সে-ই শ্বাসরোধ করে খুন করেছে কিশোরীকে।



পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাত থেকে কোথাও মেয়ের সন্ধান না পেয়ে অবশেষে থানায় যায় কিশোরীর পরিবার। শনিবার গ্রামের একটি গাছে দেহটি ঝুলতে দেখে পুলিশে খবর দেন গ্রামবাসীরা। ঘটনা জানাজানির পর ওই স্কুল ছাত্রদের গণপিটুনির পর পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এক কিশোর আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি। পুলিশ জানিয়েছে, পরে ধরা পড়েছে দলের বাকি পাঁচ অভিযুক্ত কিশোরও।