Sponsored

জিকে শামীমের জামিন, জানেন না রাষ্ট্রপক্ষ

ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানের সময় গ্রেপ্তার হওয়া যুবলীগের বহিষ্কৃত নেতা ও বিতর্কিত ঠিকাদার জিকে শামীম হাইকোর্ট থেকে অস্ত্র মামলায় ছয় মাসের জামিন পেয়েছেন বলে খবর বেরিয়েছে। তবে এ ব্যাপারে কোন তথ্য জানেন না অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।



গত সেপ্টেম্বরে ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানের সময় গ্রেফতার হন আলোচিত যুবলীগ নেতা জিকে শামীম। শোনা যায়, অত্যন্ত গোপনীয়তায় ৬ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট থেকে ছয় মাসের জামিন নেন শামীম। জামিনের লিখিত আদেশ গত ১২ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত হয়।


জি কে শামীমের জামিনের বিষয়টি শুনেছেন বলে জানিয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, বিষয়টি আমি শুনলাম। এ ব্যাপারে নথিপত্র দেখে রবিবার পদক্ষেপ নেব।

জানা গেছে, গত ৬ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান এবং বিচারপতি এস এম মুজিবুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ থেকে জামিন নেন জি কে শামীম।

তবে ওই আদালতে নিযুক্ত ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ফজলুর রহমান খান শনিবার একটি বেসরকারি টিভিকে জানিয়েছেন, জিকে শামীমের জামিনের বিষয়ে তিনি অবগত নন। এ বিষয়ে তিনি রবিবার খোঁজ নিয়ে দেখবেন।
প্রসঙ্গত, গেল বছরের সেপ্টেম্বরে রাজধানীতে ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান শুরু হয়। ২০ সেপ্টেম্বর ঢাকার গুলশানের নিকেতনে জিকে শামীমের কার্যালয় থেকে তাকে গ্রেপ্তারের পাশাপাশি তার সাত দেহরক্ষীকে র‌্যাব গ্রেপ্তার করে। অভিযানে জি কে শামীমের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে নগদ প্রায় দুই কোটি টাকা, পৌনে দুইশ কোটি টাকার এফডিআর, আগ্নেয়াস্ত্র ও মদ পেয়েছে বলে জানায় র‌্যাব।

অস্ত্র ও মাদক আইনে যে দুটি মামলা করা হয়েছিল, তাতে জিকে শামীমের পাশাপাশি সাত দেহরক্ষীকেও আসামি করা হয়। শামীমের বিরুদ্ধে পৃথক একটি মাদকের মামলাও হয়। এসব মামলায় রিমান্ডেও নেয়া হয় আলোচিত ঠিকাদার শামীমকে। তিনি এখন কারাগারে রয়েছেন। এছাড়া দুর্নীতির অভিযোগে গত বছরের ২১ অক্টোবর জি কে শামীমের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন।