Sponsored

হৃদয়ঘটিত স্বপ্নে পথেই ধর্ষণ পরে হত্যা, লাশটি আগৈলঝাড়ার ঈশিতা

কুয়াকাটার একটি আবাসিক হোটেল থেকে উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত তরুণীর মরদেহের পরিচয় পাওয়া গেছে। নিহতের নাম ঈশিতা কর (১৭)। তিনি বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বারপাইকা গ্রামের নিপুল করের মেয়ে ও কালকিনির ডাসার সরকারি শেখ হাসিনা উইমেন্স কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন।




হত্যায় অভিযুক্তের নাম আব্দুর রাজ্জাক সরদার (৩৩)। তিনি যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলা সদরের বাসিন্দা। পেশায় তিনি ড্রেজার চালক।


বৃহস্পতিবার সকালে আগৈলঝাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আফজাল হোসেন বলেন, ওই কিশোরীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে কুয়াকাটার হলিডে ইন নামের একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে সম্ভবত ধর্ষণের পর হত্যা করে পালিয়ে যায় রাজ্জাক। তাকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান চলছে। ওসি আরও জানান, গত ২৯ ফেব্রুয়ারি সকালে কলেজে পরীক্ষা দিতে গিয়ে নিখোঁজ হয়েছিলেন ঈশিতা।

গৌরনদী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মাহাবুবুর রহমান জানান, পুলিশের তদন্তে নিহতের পরিচয় মেলে। পরে পরিবারে খবর দিলে তারা এসে মরদেহ সনাক্ত করেন।

মহিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মনিরুজ্জামান জানান, ওই আবাসিক হোটেল থেকে গত ৩ মার্চ সকালে মরদেহ উদ্ধারের পর প্রাথমিকভাবে পুলিশ বাদি হয়ে ইউডি মামলা করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। পরে বৃহস্পতিবার নিহত তরুণীর বাবা মহিপুর থানায় পৌঁছে আব্দুর রাজ্জাক সরদারকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।