Sponsored

ছেলেদের অত্যাচারে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বৃদ্ধ বাবা-মা

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে ঔরসজাত দুই ছেলে ও তাদের স্ত্রীদের সীমাহীন অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে এবং প্রাণের ভয়ে বাড়িঘর ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বৃদ্ধ বাবা-মা। এ ব্যাপারে থানায় মামলা না নেওয়ায় অবশেষে তারা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন।



সম্প্রতি মানিকগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নের খাসেরচর গ্রামের ৭০ বছরের বৃদ্ধা ফিরোজা বেগমের দায়ের করা মামলা থেকে জানা গেছে, তার ছেলে মো. হানিফ (৩৭) ও হায়দার আলী (৪০) এবং তাদের স্ত্রী নুরজাহান (৩০) ও কবিতা (৩৫) স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি লিখে দিতে বাবা-মাকে চাপ দেয়।


এতে অস্বীকৃতি জানাইলে তারা তাকে এবং ও তার স্বামী কোমর আলীকে (৭৫) হত্যার উদ্দেশ্যে শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি কিল, ঘুষি ও লাথি মেরে নিস্তেজ করে পরনের কাপড় দিয়ে গলায় প্যাঁচ দিয়ে শ্বাসরোধের চেষ্টা করে। তার স্বামী এগিয়ে এলে তাকেও কিল, ঘুষি ও লাথি মেরে শ্বাসরোধ করার চেষ্টা করে। এ সময় তারা তাদের মায়ের গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয় এবং ঘরে থাকা স্বর্ণের আংটি ও স্টিলের আলমারি ভেঙে জমাকৃত ১ লাখ ২০ হাজার টাকা লুটে নেয়। প্রচণ্ড মারধরে মা-বাবার মৃত্যু হয়েছে মনে করে তারা ঘরের জিনিসপত্র নিয়ে যায়। গ্রামবাসী আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীকে উদ্ধার করে সাভার হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়।

বৃদ্ধ কোমর আলী সাংবাদিকদের বলেন, ‘ছেলেদের অত্যাচার আর নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে তিন দিন থানায় গিয়েছি। কিন্তু পুলিশ আমাদের মামলা নেয়নি। বরং থানার দারোগা ওদের সঙ্গে দেখা করে মোটা অঙ্কের উেকাচ নিয়ে চলে যায়। তাই বাধ্য হয়ে কোর্টে এসেছি মামলা করতে। কিন্তু ওরা যদি জানতে পারে আদালতে ওদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি তাহলে আমাদের মেরে ফেলতে পারে। তাই নিজের বাড়িঘর সংসার ফেলে এই বৃদ্ধ বয়সে কয়েক দিন মেয়ের বাড়ি এবং এ বাড়ি ও বাড়ি পালিয়ে বেড়াচ্ছি।’

এ বিষয়ে জানতে থানার ওসি আব্দুস সাত্তার মিয়ার মোবাইলে ফোন করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। ফলে তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। (সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক)