Sponsored

গভীর রাতে জাবির হলে ঢুকে ছাত্রলীগ নেতাদের ‘মাতলামি’ (ভিডিও)

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতার বিরুদ্ধে ‘মদ্যপ’ অবস্থায় হলে ঢুকে মাতলামি করার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে আ ফ ম কামালউদ্দিন হলে এ ঘটনা ঘটে।



প্রত্যক্ষদর্শী ও হলের আবাসিক শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি জহিরুল ইসলাম বাবু, বায়জিদ রানা কলিন্স, মিজানুর রহমান ও অভিজিৎ নন্দী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আফফান হোসেন আপন, সাংগঠনিক সম্পাদক তারেক হাসান, উপ-প্রচার সম্পাদক আবদুল্লাহ আল মুইত, ছাত্রলীগ নেতা নাঈমুল ইসলামসহ আরও কয়েকজন গতকাল রাত সাড়ে ১২টায় আ ফ ম কামালউদ্দিন হলের ভেতরে প্রবেশ করেন।


এ সময় তারা শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি জুয়েল রানাকে উদ্দেশ্য করে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। এ ছাড়া জুয়েল রানাকে গুলি করে মারারও হুমকি দেন। তাদের এমন মাতলামি দেখে হলে শোরগোল পড়ে যায়। হলের শিক্ষার্থীরা তাদের মারতে উদ্যত হন। পরে হল ছাত্রলীগের সিনিয়র নেতাকর্মীরা তাদের বুঝিয়ে হলের বাইরে পাঠিয়ে দেন।

এ সময় তাদের একজনকে বলতে শোনা যায়, ‘ছোটভাই মাফ করে দিস, আমরা একটু খাওয়া-দাওয়া করছি তাই ঠিক নাই।’

ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি জহিরুল ইসলাম বাবু বলেন, ‘জুয়েল ভাই (ছাত্রলীগ সভাপতি) ক্যাম্পাসে আসবে এমন খবর শুনে আমাদের জুনিয়ররা কামালউদ্দিন হলের সামনে যাই। পরে আমরা তাদের সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে আসি। মদ্যপ অবস্থায় থাকার কোনো ঘটনা ঘটেনি।’

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল রানা বলেন, ‘ঘটনার সময় আমি সাংগঠনিক কাজে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সাথে ছিলাম। কেন্দ্রীয় সভাপতি, সাধারণ সম্পাদককে বিষয়টি অবহিত করেছি। তারা এটি দেখভাল করবেন।’

প্রসঙ্গত, গত কয়েকমাস ধরেই শাখা ছাত্রলীগের একটি অংশ সভাপতি জুয়েল রানাকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে নতুন কমিটির দাবি করে আসছে। আজ বুধবার ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সম্পাদক জাবিতে এসে নতুন কমিটির বিষয়ে আলোচনা করার কথা ছিল। কিন্তু শাখা ছাত্রলীগের বিদ্রোহী অংশটির নেতাদের এমন কর্মকাণ্ডে তা পিছিয়েছে বলে জানা গেছে। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শাখা ছাত্রলীগের জুনিয়র কর্মী ও পদবঞ্চিতরা