Sponsored

এই মৃত্যু বাংলাদেশে আর কারো ভাগ্যে যেন না হয়।

এমন মৃত্যু কারো ভাগ্যে যেন না হয়। যিনি বাংলাদেশে করোনায় মারা গেলেন, সেই ব্যক্তিও কি কখনো ভেবেছিলেন, তার লাশের পাশে আসবে না কোনো স্বজন? তার জানাজায় থাকবে না কোন মুসল্লী? শেষবারের মতো এক নজর দেখতে ভীড় করবে না কেউ? এমন মৃত্যু কি কখনো তার কল্পনায় ছিল? হ্যাঁ, এটি এখন বাস্তবতা। ফেসবুকে বিদেশে করোনায় মৃতের লাশ সৎকারের দৃশ্য দেখে শিউরে উঠেছি অনেকেই। এটি ফেসবুক নয়, বাস্তব এবং বাংলাদেশের দৃশ্য। যে দৃশ্য দেখে কেউ স্থির থাকতে পারে না।



প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে প্রথম মৃত ব্যক্তির দাফন হয়েছে আজিমপুর কবরস্থানে। এই ব্যক্তির দাফন-কাফনে তার স্বজনদের কেউ উপস্থিত ছিলেন না। এমনকি হয়নি জানাজাও। আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলাম লাশের দাফনের ব্যবস্থা করেছে। ঢাকা জেলা প্রশাসনের একজন ম্যাজিস্ট্রেট দূর থেকে শুধু তদারকি করেছেন।


বিদেশ থেকে আগত এক আত্মীয়ের মাধ্যমে সংক্রামিত হয়েছিলেন এই বৃদ্ধ। প্লিজ, এখনো সময় আছে, দয়াকরে সবাই সচেতন হোন। প্রয়োজনীয় নির্দেশিত সব পদক্ষেপ মেনে চলার চেষ্টা করুন। নিজে বাচুন, অন্যকে বাচতে দিন।